গরুর খামার করার আগে যে বিষয় সচেতন থাকা একান্ত ভাবে দরকার

লুৎফর রহমান,লালমনিরহাট //

গরুর খামার করার আগে প্রাথমিক বিবেচ্য বিষয়সমূহ আমাদের সকলেরই জেনে রাখা দরকার। গরু পালন লাভজনক হওয়ায় দিন দিন আমাদের দেশে গরুর খামার বেড়েই চলছে। গরুর খামার করার মাধ্যমে অনেকেই স্বাবলম্বী হচ্ছেন আবার অনেকেই লোকসানে পড়ছেন।

গরুর খামার করার আগে প্রাথমিক কিছু বিষয় বিবেচনা করতে হয়। আজকে আমরা জানবো গরুর খামার করার আগে প্রাথমিক বিবেচ্য বিষয়সমূহ সম্পর্কে-

গরুর খামার করার আগে প্রাথমিক বিবেচ্য বিষয়সমূহঃ

বর্তমানে স্বাবলম্বী হওয়ায় জন্য অনেকেই গরুর খামার করার ইচ্ছা প্রকাশ করে থাকেন। নিজে গরুর খামার করার আগে প্রাথমিক বিবেচ্য বিষয়সমূহ নিয়ে বিস্তারিত আলোচনা করা হল-

গরু রাখার ব্যবস্হাঃ ঘর টিন হোক পাকা ছাদ হোক গরুর আলো বাতাসের ব্যবস্হা থাকা গোয়াল ঘরটি পরিস্কার পরিচ্ছন্নতায় রাখা পানি দিয়ে ধুয়ে ফেলা সেই ব্যবস্হা রাখা।

গরুর খাদ্যের সহজলভ্যতাঃ

গরুর খামার শুরু করার আগে গরুর খাদ্যের সহজলভ্যতার বিষয়টি বিবেচনা করতে হবে। খামারের আশপাশে গরুর খাদ্যের পাইকারী দোকান আছে কিনা বা দূরে থাকলে সেখান থেকে পরিবহন খরচ কেমন পড়বে তা ভালোভাবে জেনে নিতে হবে। সব মিলিয়ে দাম হিসাব করলে কেজি প্রতি গরুর খাবারের দাম কেমন আসবে তাও হিসাব করে দেখতে হবে।

কর্মচারীর সহজলভ্যতাঃ

গরুর খামারে সফল হওয়ার জন্য অভিজ্ঞ ও সহজলভ্য কর্মচারী পাওয়া যাবে কিনা তা বিবেচনা করতে হবে। অভিজ্ঞ কর্মচারী কোথা থেকে জোগাড় করবেন, কত বেতন দিতে হবে, যে বেতন দিবেন তাতে কয়টি গরু কিনে দিলে পোষাবে সে বিষয়গুলোও বিবেচনা করতে হবে।

ঘাস চাষের ব্যবস্থাঃ

খামারে অনেকগুলো গরু পালন করলে ঘাস চাষ করা জরুরী। তা না হলে গরুর খামারে খাদ্যের খরচ বৃদ্ধি পাবে ও খামারের ব্যয়ও অনেক ক্ষেত্রে বেড়ে যাবে।

সেজন্য খামারের গরুগুলোর জন্য ঘাস চাষ করার পর্যাপ্ত জমি আছে কিনা তাও বিবেচনা করতে হবে। যদি থাকে তাহলে কি ঘাসের চাষ করা যাবে, নেপিয়ার নাকি জার্মান? চাষের জায়গা কি উচু না নিচু? বর্ষায় কি পানি জমে থাকে? পানি জমে থাকলে নেপিয়ার ঘাস করা যাবেনা এসব বিষয় বিবেচনা করতে হবে।

গরুর দুধ বিক্রিঃ

খামারে গাভী পালন করা হলে উৎপাদিত দুধ কিভাবে বিক্রি হবে তাও ভেবে দেখতে হবে। খামারে এসে কি দুধ নিয়ে যাবে নাকি আপনাকে বাজারে বা মিস্টির দোকানে গিয়ে বিক্রি করতে হবে সেই বিষয়গুলোও বিবেচনা করে দেখতে হবে।

পশুর চিকিৎসাঃ

খামারে পালন করা গরুর চিকিৎসার জন্য নিকটবর্তী কোন পশু হাসপাতাল বা চিকিৎসার ব্যবস্থা আছে কিনা তা বিবেচনা করে দেখতে হবে। যদি না থাকে তাহলে বিকল্প ব্যবস্থা রাখতে হবে। তবে খামারিকে প্রাথমিক পশু চিকিৎসা ব্যবস্হা জানা একান্ত প্রয়োজন খামারের আশপাশে ওষুধের দোকান আছে কিনা বা ভাল দক্ষ এ আই কর্মীদের পাওয়া যায় কিনা তাও বিবেচনা করে দেখতে হবে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here